আজ: মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২ইং, ৩রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৫ই শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১৭ মার্চ ২০২২, বৃহস্পতিবার |



kidarkar

অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য মরিয়া হয়ে তুরস্কের ব্যাংকে রুশরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:ইউক্রেনে সামরিক অভিযানের পরিপ্রেক্ষিতে রাশিয়ার ব্যাংকসহ আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ওপর একের পর এক নিষেধাজ্ঞা দিয়ে আসছে যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা দেশ ও সংস্থাগুলো। এমন পরিস্থিতিতে বৈশ্বিক আর্থিক ব্যবস্থায় নিজেদের সঞ্চিত অর্থ রাখতে তুরস্কের ব্যাংকগুলোতে ছুটছেন রাশিয়ার নাগরিকরা।

তুরস্কভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ডেইলি সাবাহর প্রতিবেদনে বলা হয়, ইউক্রেনের সঙ্গে যুদ্ধ বাধার পর নানা কারণে তুরস্কে আসছেন রুশরা। এর মধ্যে রয়েছে সামরিক বাহিনীতে বাধ্যতামূলক যোগ দেয়া এড়ানো, বেকারত্ব কিংবা নিষেধাজ্ঞা আরও কঠোর হওয়ার আশঙ্কা।

প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের নির্দেশে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে রুশ সামরিক অভিযান শুরুর পর অনেক দেশ রাশিয়ার সঙ্গে বিমান যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়, তবে তুরস্কে সে পথে হাঁটেনি। টার্কিশ এয়ারলাইনস দৈনিক পাঁচবার ইস্তাম্বুল থেকে মস্কোতে যাওয়া-আসা করছে।

সামরিক জোট ন্যাটোভুক্ত অন্য দেশগুলোর মতো রাশিয়ার ওপর কোনো নিষেধাজ্ঞাও দেয়নি তুরস্ক। দেশটি শুরু থেকেই দুই পক্ষকে সংযত থাকার আহ্বান জানিয়ে কূটনৈতিক সমাধানের পথে এগিয়েছে।

যুদ্ধের শুরু থেকেই মধ্যস্থতার প্রস্তাব দিয়েছে তুরস্ক। দেশটি নিজেদের রিসোর্ট সিটি আনতালিয়ায় রাশিয়া ও ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ে বৈঠকের আয়োজনও করেছে।

এসব কারণে তুরস্ককে গন্তব্য হিসেবে বেছে নিয়েছেন রুশরা, যারা সাধারণত পর্যটনের জন্য ইস্তাম্বুল কিংবা অন্য শহরগুলোতে যান।

সূত্রের বরাত দিয়ে অর্থনীতি নিয়ে কাজ করা তুরস্কের সংবাদমাধ্যম দুনিয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়, গত কয়েক সপ্তাহে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খুলতে চাওয়া রাশিয়ার নাগরিকদের সংখ্যা উল্লেখযোগ্য হারে বেড়েছে।

ইউক্রেনে হামলার পর পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার পরিপ্রেক্ষিতে বিদেশে অর্থ লেনদেন সীমিত করেছে রাশিয়ার কেন্দ্রীয় ব্যাংক। আর্থিক প্রতিষ্ঠানটি ৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত রুশ মুদ্রা রুবলের বিপরীতে বিদেশি মুদ্রা বিক্রি বন্ধ করেছে।

প্রতিষ্ঠানটি রাশিয়ার ব্যাংকগুলোতে থাকা অ্যাকাউন্ট থেকে সর্বোচ্চ ১০ হাজার ডলার পর্যন্ত বিদেশি মুদ্রা উত্তোলনের সীমা বেঁধে দিয়েছে। এর বেশি পরিমাণ অর্থ উত্তোলন করতে হলে সেটি রুবলে করতে হবে। উল্লিখিত ব্যবস্থায় বিপাকে পড়েছেন দেশত্যাগী রুশরা।

তুরস্কে অ্যাকাউন্ট খুলতে হলে বসবাসের ঠিকানা, ট্যাক্স সংক্রান্ত নম্বর, পাসপোর্ট নম্বর ও মোবাইল নম্বর দিতে হয় বিদেশিদের, তবে রুবল অন্য কোনো মুদ্রায় বিনিময় করতে না পারায় রুশদের তুরস্কের লিরায় অ্যাকাউন্ট খুলতে হচ্ছে।

কিছু সূত্র দুনিয়াকে জানিয়েছে, তুরস্কের লিরাকেন্দ্রিক অ্যাকাউন্ট রুশদের দুটি সুবিধা দিচ্ছে। প্রথমত, এর মাধ্যমে তারা তুরস্কে জীবনধারণের খরচ জোগাতে পারছেন। দ্বিতীয়ত, লিরায় অ্যাকাউন্ট খোলার পর রুশরা বিদেশি মুদ্রার অ্যাকাউন্ট খুলতে পারছেন এবং আন্তর্জাতিক অর্থব্যবস্থায় নিজেদের সঞ্চিত অর্থ রাখতে পারছেন।

ওই সূত্রগুলো আরও জানিয়েছে, রাশিয়া থেকে আগত ব্যক্তিদের মধ্যে তুরস্কের ব্যাংক অ্যাকাউন্টের চাহিদা আরো বাড়বে।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.