আজ: মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২ইং, ৩রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৫ই শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১৯ এপ্রিল ২০২২, মঙ্গলবার |



kidarkar

`জাপানি বন্ধুদের কাছ থেকে আমরা পোর্টফোলিও বিনিয়োগ ও আশা করছি’

শেয়ারবাজার রিপোর্ট:পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেছেন, জাপানি বন্ধুদের কাছ থেকে আমরা এফডিআই চাই। সঙ্গে পোর্টফোলিও বিনিয়োগও আশা করছি। কারণ এখান থেকে মুনাফা পাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি

মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) ইস্টার্ন ব্যাংক ও ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের সাথে জাপানি ব্যবসায়ীদের সংগঠন জেটরোর যৌথ উদ্যোগে ‘বাংলাদেশের পুঁজিবাজারে জাপানি বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগের সুযোগ’ শীর্ষক আয়োজিত ওয়েবিনারে তিনি এসব কথা বলেন।

জাপানি ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে সরাসরি বিদেশি বিনিয়োগের (এফডিআর) পাশাপাশি পুঁজিবাজারে পোর্টফোলিও বিনিয়োগ করার আহ্বান জানিয়ে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসির চেয়ারম্যান বলেন, জাপান বাংলাদেশের সবচেয়ে ভালো ও বিশ্বস্ত বন্ধু। ‘১৯৭১ সালে বাংলাদেশের যখন জন্ম হয়, তখন সবচেয়ে দরিদ্র দেশগুলোর একটি ছিলাম। ৫০ বছর পর ২০০ দেশের মধ্যে জিডিপির আকারে এখন আমরা ৪৩তম। ২০৩০ সালের মধ্যে শীর্ষ ২০টি দেশের একটি হতে চাই।’

জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি বলেন, ‘বাংলাদেশের যেভাবে উন্নতি করছে, ব্যবসার পরিবেশ ভালো করছে, সেগুলো জাপানি ব্যবসায়ীদের জানানো উচিত। এক্ষেত্রে বাংলাদেশে যেসব জাপানিরা ব্যবসা করছেন, তাদের অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে পারলে ভালো হয়।’

ডিএসইর চেয়ারম্যান ইউনুসুর রহমান বলেন, ‘জাপান সবসময় বাংলাদেশের বন্ধু দেশ। বাংলাদেশের উন্নয়নে বন্ধু দেশের কাছ থেকে অনুদান নয়, বিনিয়োগ প্রত্যাশা করছি।’

ডিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক তারিক আমিন ভূঁইয়া বলেন, ‘বাংলাদেশের শেয়ারবাজার মূলত মূলধনী বাজার নির্ভর। তবে এখন নতুন ধারা বিনিয়োগ পণ্য আনার চেষ্টা চলছে। বর্তমানে বাজার মূলধন জিডিপির তুলনায় ২০ শতাংশ। এটা শতভাগের সমানে উন্নীত করার সুযোগ আছে।’

জেটরোর কান্ট্রি রিপ্রেজেনটেটিভ ইউজু অ্যানডু বলেন, ‘বাংলাদেশে জাপানি কোম্পানির মুনাফা বাড়ছে। ভবিষ্যতে মুনাফা আরও বাড়বে বলে মনে করছেন জাপানি ব্যবসায়ীরা। আগের তুলনায় শ্রমিক মজুরি বাড়লেও প্রতিযোগী দেশগুলোর তুলনায় এখনও তা প্রতিযোগিতামূলক অবস্থানে আছে। তবে ব্যবসার ক্ষেত্রে কাঁচামাল আমদানি করতে হয় বেশি। বাংলাদেশেই কাঁচামাল কেনা গেলে ব্যবসার সুযোগ আরও বাড়তো।’

৩ উত্তর “`জাপানি বন্ধুদের কাছ থেকে আমরা পোর্টফোলিও বিনিয়োগ ও আশা করছি’”

  • Anonymous says:

    কোন বাজার এটা?
    সূচক কমলে শেয়ারের দাম কমে।
    সূচক বাড়লেও শেয়ারের দাম কমে।
    কি এটা ??
    ফ্লোর price চাই।
    মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন শেয়ার মার্কেট এর দিকে নজর দিন।
    এখানে ভালো মানুষকে দায়িত্ব দেন।

  • Anonymous says:

    মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনি নিজে সরাসরি শেয়ার বাজারের দায়িত্ব নিন।
    আলহামদুলিল্লাহ,
    আপনার প্রতি আমাদের বিশ্বাস ও ভরসা আছে
    কিন্তু আপনি যাদের দায়িত্ব দিয়েছেন তাদের বেশিরভাগ(৯৫%) মানুষি সুবিধাবাদী।
    তাই আপনার কাছে বিনীত অনুরোধ আপনি সরাসরি এই
    সেক্টরটা দেখেন।
    বাংলাদেশের প্রায় সব সূচক বাড়লেও শেয়ার বাজারের সূচক তলানিতে।

  • Azam says:

    শিবলী স্যার ব্যাংকের শেয়ারের জন্য ফ্লোর প্রাইসের ব্যাবস্তা করুন অন্যথায় এইখাত ধ্বংস হয়ে যাবে। খেয়াল করে দেখুন ব্যাংকের শেয়ারের দাম ১০ টাকার আশেপাশে চলে এসেছে। এই শেয়ারগুলো আর নিচে নামার জায়গা নেই। দয়া করে আমাদের রক্ষা করুন এবং শেয়ার বাজারের সম্মান বাঁচান।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.