আজ: সোমবার, ১৬ মে ২০২২ইং, ২রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৩ই শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২০ এপ্রিল ২০২২, বুধবার |



kidarkar

শেয়ারবাজারে বিনিয়োগে রাষ্ট্রায়ত্ত ৪ ব্যাংককে চিঠি

শেয়ারবাজার ডেস্ক: শেয়ারবাজারে বিনিয়োগে রাষ্ট্রায়ত্ত চার ব্যাংকে বিশেষ তহবিল গঠনসহ নতুন বিনিয়োগের তথ্য জানতে চেয়ে চিঠি পাঠিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) কমিশনের পক্ষ থেকে সোনালি, অগ্রণী, জনতা ও রূপালী ব্যাংকের কাছে এ সংক্রান্ত একটি চিঠি পাঠানো হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, ব্যাংক কোম্পানি আইন ১৯৯১ অনুসারে, এককভাবে একটি ব্যাংক তার ইকুইটির ২৫ শতাংশ পর্যন্ত শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ করতে পারে। রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলোর বর্তমানে শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ নির্ধারিত সীমার নিচে রয়েছে। ফলে বিদ্যমান আইনী সীমার মধ্যেই এ ব্যাংকগুলোর শেয়ারবাজারে আরো বিনিয়োগের সুযোগ রয়েছে। এজন্য তাদের কাছে শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ সংক্রান্ত তথ্য জানতে চাওয়া হয়েছে।

এতে আরো বলা হয়েছে, রাষ্ট্রায়ত্ত এই চার ব্যাংক এখনো বাংলাদেশ ব্যাংক ঘোষিত শেয়ারবাজারে বিনিয়োগের জন্য ২০০ কোটি টাকার বিশেষ তহবিল গঠন করে নি। ফলে প্রচলিত সুযোগের পাশাপাশি বিশেষ তহবিলের মাধ্যমে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলোর শেয়ারবাজারে বিনিয়োগের সুযোগ রয়েছে।

শেয়ারবাজারের সাম্প্রতিক তারল্য সংকটের সময় তাই এই ব্যাংকগুলোকে নির্ধারিত সীমার মধ্যে থেকেই শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ বাড়ানোর অনুরোধ জানিয়েছে বিএসইসি।

৩ উত্তর “শেয়ারবাজারে বিনিয়োগে রাষ্ট্রায়ত্ত ৪ ব্যাংককে চিঠি”

  • আজম says:

    বাংলাদেশ ব্যাংকের আদেশ/নির্দেশনা গুলো সম্মান করা প্রত্যক ব্যাংকের কর্তব্য। ২০০ কোটি টাকার তহবিল গঠন করা ব্যাংকগুলোর জন্য স্বাভাবিক একটা ব্যাপার। প্রত্যকটা ব্যাংকে বাংলাদেশ ব্যাংকের হুকুম মানা একান্ত প্রয়োজন। শেয়ার বাজার এবং ব্যাংক, একটার সাথে আরেকটা পরস্পর জড়িত। সুতরাং বাংলাদেশ ব্যাংকের উচিৎ,শেয়ার বাজারকে তার উপযুক্ত সম্মান দেয়া। বাংলাদেশ ব্যাংক‌‌‌ তার উপযুক্ত সাপোর্ট না দিলে শেয়ার বাজার অচিরেই তার নির্দিষ্ট গতি হারাবে। বাংলাদেশ ব্যাংক‌‌‌ শেয়ার বাজারকে উপযুক্ত সাপোর্ট দিলে, একদিন এই বাজার বিশ্বমানের একটি শেয়ার বাজার হবে।

  • Md liakat ali tutul says:

    1996 2010 সহ প্রতিবার এ বাংলাদেশ ব‍্যাংকের অসহযোগিতা মূলক আচরণ আসলেই লক্ষণীয়, তবে কি দেশের সম্মান রক্ষায় এটার কোনো মাথা ব‍্যথা নেই, নাকি এ বাজারকে এটি অলাভজনক মনে করছে, নাকি এটি বাংলাদেশকে পাকিস্তান বানাতে চায়, তাহলে কি শর্ষের মধ‍্যেই ভূত?

  • মোঃ সাহাব উদ্দিন মোল্লা says:

    বিএসইসি বর্তমান চেয়ারম্যান মহদোয় শেয়ার নিয়ে চেষ্টা করে যাচ্ছে ব্যাংকগুলো বাংলাদেশ ব্যাংক আদেশ না দিলে ব্যাংকগুলো বিএসইসি যত চিঠি দিয়ে
    কোন লাভ নেই বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর মহোদয় শেয়ার বাজার ভবিষ্যতে নিয়ে সঠিক সিদ্ধান্ত না দিলে এই বাজার ঠিক হবেনা । বর্তমান সরকার শেয়ার বাজার নিয়ে নিতি সহায়তা প্রদান করে আসছে অথচ বাংলাদেশ ব্যাংক উল্লেখযোগ্য হারে কোন প্রয়োজন আছে বলে মনে হয় না

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.