আজ: রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩ইং, ১৫ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৫ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১৯ ডিসেম্বর ২০২২, সোমবার |


kidarkar

বিদ্যুৎ ও তেলের বিকল্পে সৌর সেচ পাম্প চালু করছে ফ্রেন্ডশিপ


নিজস্ব প্রতিবেদক : কৃষিকাজে সেচের জন্য সৌর বিদ্যুৎ পাম্প প্রতিষ্ঠা করছে দেশের অন্যতম সামাজিক সংস্থা ‘ফ্রেন্ডশিপ’। ময়মনসিংহের হালুয়াঘাটে গাজীর ভিটা ইউনিয়নের চর বাঙালিয়া গ্রামে স্থাপন করা হচ্ছে এই সৌর বিদ্যুৎ পাম্প। স্থানীয় পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠির সহযোগিতায় এ ধরণের পাম্প সরবরাহ করছে অস্ট্রেলিয়া ভিত্তিক অবকাঠামো নির্মান পরামর্শক ফার্ম ‘এসএমইসি ইন্টারন্যাশনাল লিঃ’। এ উপলক্ষ্যে রাজধানীতে পরামর্শক ফার্মটির গুলশান অফিসে আয়োজন করা হয় চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠান। ফ্রেন্ডাশিপের জেষ্ঠ পরিচালক এবং লিগ্যাল ও অর্থ বিভাগ প্রধান মুহাম্মদ শামীম রেজা এবং এসএমইসি’র কান্ট্রি ম্যানেজার মোহাম্মদ মাসুদুর রহমান, নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

সোলার পাম্প উদ্যোক্তারা জানান, ১৬ কিলোওয়াট সৌর প্যানেলে চলবে ১০ কিলোওয়াট পাম্প, যার ক্ষমতা ১৩ হর্সপাওয়ার। পাম্পের প্রতি মিনিটে সর্বোচ্চ পানি উত্তোলন ক্ষমতা ২০০০ লিটার। প্রতিদিন ৯০ বিঘা ধান ক্ষেত অথবা ১২০ বিঘা সব্জি ক্ষেতে সেচের পানি সরবরাহ করা যাবে এ পাম্পের মাধ্যমে। প্রায় ১২০ জন কৃষকের মাধ্যমে সৌর পাম্পের প্রত্যক্ষ সুবিধা পাবেন স্থানীয় ১০০০ এর বেশি বাসিন্দা।

গারো নৃতাত্বিক জনগোষ্ঠি অধ্যুষিত ময়মনসিংহের সীমান্তবর্তী উপজেলা হালুয়াঘাট গাজীর ভিটা ইউনিয়নের সুবিধা বঞ্চিত গ্রাম চর বাঙালিয়ার প্রধান ফসল ধান, ভুট্টা, গম, পাট, আলু, সরিষা এবং শাক-সবিব্জ। এখানকার ফসলের সেচ কাজে বিদ্যুৎ বা ডিজেল চালিত পাম্পে প্রতি বিঘায় খরচ পড়ে ৩৫০০ থেকে ৪০০০ টাকা। সৌর পাম্প চালু হলে সেচের খরচ অর্ধেকে নেমে আসবে। উদ্যোক্তারা জানান, সৌর পাম্পে প্রতি বিঘায় সেচের জন্য খরচ পড়বে ১৫০০ থেকে ২০০০ টাকা।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, ফ্রেন্ডশিপ পার্টানারশীপ ডেভেলপমেন্ট বিভাগের সহকারী পরিচালক ড. মোহাম্মদ সাখাওয়াত হোসেন, সিনিয়র ম্যানেজার মাহিদুল ইসলাম, সহকারী ম্যানেজার সালমান রহমান এবং ‘এসএমইসি ইন্টারন্যাশনাল লিঃ’ এর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।


আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.