আজ: শনিবার, ১৫ মে ২০২১ইং, ১লা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১লা শাওয়াল, ১৪৪২ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১০ ফেব্রুয়ারী ২০১৫, মঙ্গলবার |


ঝুলন্ত অবস্থায় দম্পতির লাশ

13473শেয়ারবাজার রিপোর্টঃ রাজধানীর ডেমরা থানার বামৈল নামক এলাকায় ঝুলন্ত অবস্থায় এক দম্পত্তির লাশ উদ্ধার করেছে স্থানীয় পুলিশ। দম্পতিরা হলেন, ধোলাইখালের মটর পার্টসের ব্যবসায়ী  আসলাম (৩২) ও তার স্ত্রী প্রিয়া আক্তার (২০)।মঙ্গলবার বিকাল ৩টার দিকে বামৈল পূর্বপাড়া এলাকায় নাহিদের ভাড়া বাসার সিলিং ফ্যানের হুকের সঙ্গে ওড়না দিয়ে প্যাঁচানো অবস্থায় দুইটি লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মিটফোর্ড হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

পারিবারিক কলহের বিরোধের জের ধরে এ ঘটনা ঘটেছে বলে মৃতের স্বজনদের ধারণা। তবে পুলিশ জানিয়েছে, পারিবারিক বিরোধের জেরে নিহতদের যে কোনও একজন আগে অন্যজনকে হত্যার পর নিজে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। আবার একসঙ্গেও তারা আত্মহত্যা করতে পারেন। ঘটনাটি আত্মহত্যা না অন্যকিছু ময়না তদন্তের রিপোর্ট পেলে বিস্তারিত জানা যাবে।

মৃত প্রিয়ার বাবা নাহিদ জানান, পাঁচ মাস আগে ডেমরার ডগাইর ভূঁঞা মসজিদ সংলগ্ন এলাকার আব্দুর রহিমের ছেলে আসলামের সঙ্গে প্রিয়ার বিয়ে হয়। এরপর থেকেই যৌতুকের জন্য প্রিয়াকে তার স্বামী ও তার পরিবারের লোকজন নানা অজুহাতে নির্যাতন করতো। পাঁচ দিন আগে প্রিয়াকে রুটি বানানোর কাঠের বেলুন দিয়ে বেধরক পেটায় তার স্বামী আসলাম। এর দুই দিন পর আসলাম প্রিয়াকে বামৈল পূর্বপাড়ায় শ্বশুর নাহিদের বাসায় দিয়ে যায়। মঙ্গলবার দুপুরে আসলাম প্রিয়াকে তার বাড়িতে নিতে চাইলে নির্যাতনের বিষয়ে ফয়সালা করেই প্রিয়াকে দেয়া হবে বলে জানিয়ে দেন নাহিদ। একপর্যায়ে বাসা থেকে বেরিয়ে যান তিনি।

দুপুর আড়াইটার দিকে প্রিয়া ও তার স্বামীকে বৈদ্যুতিক পাখা ঝুলানোর হুকের সঙ্গে ওড়না প্যাঁচানো অবস্থায় দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয় স্বজনরা। পরে পুলিশ তাদের মরদেহ মিটফোর্ড হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।
ডেমরা থানার এসআই নাজমুল ইসলাম বলেন, পারিবারিক বিরোধের জের ধরে এ ঘটনা ঘটেছে। তবে ঘটনাটি আত্মহত্যা নাকি অন্যকিছু তা এখনও তদন্তে পাওয়া যায়নি।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.