আজ: রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২ইং, ১৭ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৭, রবিবার |


kidarkar

বস্ত্র খাতে আয় বেড়েছে ১৯ কোম্পানির


Textileশেয়ারবাজার রিপোর্ট: আয় বেড়েছে দেশের শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত বস্ত্র খাতে থাকা ১৯ কোম্পানির। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৬ সমাপ্ত দ্বিতীয় প্রান্তিকের প্রতিবেদনে দেখানে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) অনুযায়ী এসব কোম্পানির মুনাফা বেড়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

মুনাফা বাড়া ১৯ কোম্পানির মধ্যে রয়েছে আলহাজ্ব টেক্সটইল, আনলিমা ইয়ার্ন, আর্গন ডেনিমস, সিএমসি কামাল, দেশ গার্মেন্টস, ড্রাগন সোয়েটার, ইভিন্স টেক্সটাইল, জেনারেশন নেক্সট, হামিদ ফেব্রিক্স, হা-ওয়েল টেক্সটাইল, ম্যাক্সন স্পিনিং, রহিম টেক্সটাইল, রিজেন্ট টেক্সটাইল, সায়হাম টেক্সটাইল, শাশা ডেনিমস, সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ, স্টাইল ক্রাফট, জাহিন স্পিনিং এবং জাহিনটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ।

এসব কোম্পানির মধ্যে দ্বিতীয় প্রান্তিকে আলহাজ্ব টেক্সটাইলের ইপিএস হয়েছে ০.৭৫ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ০.৬৬ টাকা। সেই হিসেবে এ কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ০.০৯ টাকা বা ১৩.৬৪ শতাংশ।

আনলিমা ইয়ার্নের ইপিএস হয়েছে ০.৫১ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ০.৪৫ টাকা। সেই হিসেবে এ কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ০.০৬ টাকা বা ১৩.৩৩ শতাংশ।

আর্গন ডেনিমসের ইপিএস হয়েছে ১.৭২ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ১.৬১ টাকা। সেই হিসেবে এ কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ০.১১ টাকা বা ৬.৮৩ শতাংশ।

সিএমসি কামালের ইপিএস হয়েছে ০.৯৬ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ০.৭৮ টাকা। সেই হিসেবে এ কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ০.১৮ টাকা বা ২৩.০৮ শতাংশ।

দেশ গার্মেন্টসের ইপিএস হয়েছে ৪.০১ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ১.৯৮ টাকা। সেই হিসেবে এ কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ২.০৩ টাকা বা ১০২.৫৩ শতাংশ।

ড্রাগণ সোয়েটারের ইপিএস হয়েছে ১.০২ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ০.৮৬ টাকা। সেই হিসেবে এ কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ০.১৬ টাকা বা ১৮.৬০ শতাংশ।

ইভিন্স টেক্সটাইলের ইপিএস হয়েছে ০.৭৮ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ০.৭৫ টাকা। সেই হিসেবে এ কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ০.০৩ টাকা বা ৪ শতাংশ।

জেনারেশন নেক্সটের ইপিএস হয়েছে ০.২৩ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ০.১৮ টাকা। সেই হিসেবে এ কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ০.০৫ টাকা বা ২৭.৭৮ শতাংশ।

হামিদ ফেব্রিক্সের ইপিএস হয়েছে ০.৬০ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ০.৫৮ টাকা। সেই হিসেবে এ কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ০.০২ টাকা বা ১.৮৪ শতাংশ।

ম্যাক্সন স্পিনিংয়ের ইপিএস হয়েছে ০.১৭ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ০.১৩ টাকা। সেই হিসেবে এ কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ০.০৪ টাকা বা ৩০.৭৭ শতাংশ।

রহিম টেক্সটাইলের ইপিএস হয়েছে ৪.৪৯ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ৩.১২ টাকা। সেই হিসেবে এ কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ১.৩৭ টাকা বা ৪৩.৯১ শতাংশ।

রিজেন্ট টেক্সটাইলের ইপিএস হয়েছে ০.৫১ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ০.৩৭ টাকা। সেই হিসেবে এ কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ০.১৭ টাকা বা ৪৫.৯৫ শতাংশ।

সায়হাম টেক্সটাইলের ইপিএস হয়েছে ০.৫৪ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ০.৩৭ টাকা। সেই হিসেবে এ কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ০.১৭ টাকা বা ৪৫.৯৫ শতাংশ।

শাশা ডেনিমসের ইপিএস হয়েছে ৩.৬৩ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ২.৪৯ টাকা। সেই হিসেবে এ কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ০.১৪ টাকা বা ৫.৬২ শতাংশ।

সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজের ইপিএস হয়েছে ১.১৫ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ০.৯৫ টাকা। সেই হিসেবে এ কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ০.২০ টাকা বা ২.১১ শতাংশ।

স্টাইল ক্রাফটের ইপিএস হয়েছে ২৬.৯৩ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ১৭.৫২ টাকা। সেই হিসেবে এ কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ৯.৪১ টাকা বা ৫৩.৭১ শতাংশ।

জাহিন স্পিনিংয়ের ইপিএস হয়েছে ০.৮৮ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ০.৪০ টাকা। সেই হিসেবে এ কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ০.৪৪ টাকা বা ১১০ শতাংশ।

জাহিনটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজের ইপিএস হয়েছে ০.৫২ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ০.৪৭ টাকা। সেই হিসেবে এ কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে ০.০৫ টাকা বা ১০.৬৪ শতাংশ।

শেয়ারবাজারনিউজ/রু


আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.