আজ: রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২ইং, ৩০শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৫ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, শনিবার |



kidarkar

সর্প কাহিনীর পর এবার বসতঘরে মেছোবাঘ!

images (2)শেয়ারবাজার ডেস্ক: বন্যার পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় বাড়িঘর ছেড়ে গিয়েছিল লোকজন। ঘরদোর খালিই পড়ে ছিল। ঘর দেখতে এসে ফোঁস ফোঁস শব্দ শুনে বাড়ির মানুষ রীতিমতো ভড়কে যায়। গ্রামের মানুষকে বিষয়টি জানানো হলে গ্রামবাসী ছুটে এসে দেখে ঘরে ঠাঁই নিয়েছে একটি মেছোবাঘ। পরে এটিকে কৌশলে আটক করা হয়।
ঘটনাটি ঘটেছে গত বৃহস্পতিবার মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার উত্তরভাগ ইউনিয়নের সিক্কা গ্রামে। বন বিভাগের বন্য প্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ মেছোবাঘটিকে উদ্ধার করে লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে অবমুক্ত করেছে।

স্থানীয় এবং বন্য প্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, রাজনগরের উত্তরভাগ ইউনিয়নের সিক্কা গ্রাম এলাকায় প্রায় তিন মাস ধরে বন্যা পরিস্থিতি বিরাজ করছে। সিক্কা গ্রামের নূর বখসের ঘর পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় তিনি পরিবারের লোকজন নিয়ে আত্মীয়ের বাড়ি চলে যান। গত বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে খালি ঘর দেখতে আসেন তিনি। ঘরের ভেতর ঢুকতে গিয়ে ফোঁস ফোঁস শব্দ শুনে ভয় পেয়ে যান। বিষয়টি গ্রামের লোকজনকে জানালে গ্রামবাসী ছুটে এসে দেখে জনশূন্য ঘরের ভেতর ঠাঁই নিয়েছে বেশ বড় আকারের একটি মেছোবাঘ। গ্রামবাসী প্রথমে মাছ ধরার জাল দিয়ে এটিকে আটক করার চেষ্টা করে। কিন্তু এটি জাল ছিঁড়ে ছুটে গিয়ে গ্রামের বাহার আলীর দোকানে ঢুকে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন কৌশলে দোকানের একটি লোহার খাঁচায় বাঘটিকে বন্দী করে ফেলে।

বিষয়টি জানাজানি হলে স্থানীয় কালার বাজারের ওষুধ ব্যবসায়ী মো. আবদুল আলীম মেছোবাঘ আটকের কথা রাজনগর থানার পুলিশকে জানান। খবর পেয়ে পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আলাউদ্দিন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। এদিকে মেছোবাঘ আটকের কথা বন্য প্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগকে জানানো হলে বন বিভাগের লোকজন ও বন্য প্রাণী সংরক্ষণের প্রতিষ্ঠান সোলের (সেভ আওয়ার আনপ্রটেক্টেড লাইফ) পরিচালক বন্য প্রাণী গবেষক তানিয়া খান গত বৃহস্পতিবার রাত আটটার দিকে ঘটনাস্থল থেকে আটক মেছোবাঘটিকে উদ্ধার করে মৌলভীবাজারের বর্ষিজুরা ইকোপার্ক এলাকায় বন বিভাগের কার্যালয়ে নিয়ে আসেন।

বন্য প্রাণী গবেষক তানিয়া খান জানান, মেছোবাঘটির শরীরের দু-একটি জায়গায় হালকা আঘাত লেগেছে। তবে সুস্থ আছে। স্থানীয়ভাবে এটিকে মেছোবাঘ/মেছো বিড়াল বলে। এটির উচ্চতা দেড় ফুট এবং লম্বায় লেজসহ তিন ফুট পর্যন্ত হয়ে থাকে। এটি একটি বিপন্ন প্রাণী।

বন্য প্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ মৌলভীবাজারের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মিহির কুমার দো বলেন, শুক্রবার বিকেলের দিকে মেছোবাঘটিকে লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের লেক এলাকায় অবমুক্ত করা হয়েছে।

শেয়ারবাজারনিউজ/মা

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.