আজ: বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১ইং, ১লা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১লা রমজান, ১৪৪২ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৩ জানুয়ারী ২০২১, রবিবার |

চড়ছে চাল ডালের বাজার

শেয়ারবাজার ডেস্ক: নতুন বছরের প্রথম দিন  শুক্রবার রাজধানীর খুচরা বাজারে চালের দাম আরেক দফা বেড়েছে। দাম বাড়ার এ তালিকায় রয়েছে ভোজ্য তেল ও মসুর ডালও। তবে ভোক্তাদের জন্য সুখবর হলো—ভারত পেঁয়াজ রপ্তানির নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ায় এ পণ্যটির দাম আরো কমেছে। কমেছে আলু ও ডিমের দামও।

চালের পাশাপাশি গতকাল দাম বেড়েছে ভোজ্যতেল ও মসুর ডালের। খোলা সয়াবিন লিটারে তিন টাকা বেড়ে ১০৭ থেকে ১১০ টাকা, খোলা পাম অয়েল দুই টাকা বেড়ে ৯৫ থেকে ৯৭ টাকা ও পাম সুপার চার টাকা বেড়ে ৯৮ থেকে ১০২ টাকা বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া বোতলজাত সয়াবিন প্রতি লিটারে পাঁচ টাকা বেড়ে ১২০ থেকে ১২৫ টাকা বিক্রি হচ্ছে। আর পাঁচ লিটারের বোতলজাত সয়াবিন বিক্রি হচ্ছে ৫৮০ থেকে ৬১০ টাকা।

মাঝারি দানা মসুর ডাল কেজিতে পাঁচ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ৮৫ থেকে ৯০ টাকা। আর ছোটদানা মসুর ডাল ১০০ থেকে ১১০ টাকা ও বড়দানা মসুর ডাল ৬৫ থেকে ৭০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। এদিকে ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ায় দেশের বাজারে এ পণ্যটির দাম আরো কমেছে। গতকাল বাজারে নতুন দেশি পেঁয়াজ ৩৫ থেকে ৪৫ টাকা ও আমদানিকৃত পেঁয়াজ ২৫ থেকে ৩৫ টাকায় বিক্রি হয়। যা এক দিন আগেও ছিল যথাক্রমে ৫০ থেকে ৬০ টাকা ও ৩৫ থেকে ৪৫ টাকা। কাওরান বাজারের পেঁয়াজ ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলাম বলেন, এমনিতেই এখন পেঁয়াজের মৌসুম। তারপর ভারত থেকে পেঁয়াজ আসছে। ফলে দুই/এক দিনেই দাম অনেক কমেছে।

কমেছে ডিমের দামও। ডজনে ১০ টাকা কমে ফার্মের লাল ডিম ৮৫ থেকে ৯০ টাকা ও হাঁসের ডিম ১৪০ থেকে ১৫০ টাকা বিক্রি হতে দেখা গেছে। আর দেশি মুরগির ডিমের হালি বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা। তবে ডিমের দাম কমলেও বেড়েছে মুরগির দাম। কেজিতে ১০ টাকা বেড়ে ব্রয়লার মুরগি ১৩০ থেকে ১৩৫ টাকা বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া প্রতি কেজি খাসির মাংস ৮০০ থেকে ৮৫০ টাকা ও গরুর মাংস ৫৮০ টাকা কেজি বিক্রি হয়।

এদিকে বাজারে সরবরাহ বাড়ায় সবজির দাম আরো কমেছে। গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে সবজিভেদে কেজিতে ৫ থেকে ১০ টাকা পর্যন্ত কমেছে। গতকাল বাজারে প্রতি কেজি শালগম, মুলা ১৫ থেকে ২০ টাকা, গাজর ৩৫ থেকে ৪০ টাকা, শিম ২৫ থেকে ৩০ টাকা, বেগুন ৩০ থেকে ৪০ টাকা, করলা ৪০ থেকে ৫০ টাকা, বরবটি ও ঢ্যাঁড়শ ৪০ থেকে ৫০ টাকা, পাকা টম্যাটো ৭০ থেকে ৮০ টাকা, কাঁচা টম্যাটো বিক্রি হচ্ছে ২০ থেকে ২৫ টাকা। গতকাল বাজারে বিভিন্ন ধরনের মাছের মধ্যে চাষের শিং মাছ ৩৫০ থেকে ৪৫০ টাকা, কই ১৬০ থেকে ১৮০ টাকা, তেলাপিয়া ১৪০ থেকে ১৫০ টাকা, রুই ২২০ থেকে ২৮০ টাকা, কাতলা ২৫০ থেকে ৩০০ টাকা, চিংড়ি ৪৫০ থেকে ৬০০ টাকা, পাঙাশ ১২০ থেকে ২০০ টাকা, পোয়া মাছ ২৫০ থেকে ২৮০ টাকা, পাবদা মাছ ২৫০ থেকে ৩০০ টাকা, টেংরা মাছ ৩০০ থেকে ৪৫০ টাকা, রূপচাঁদা মাছ ৫০০ থেকে ৬০০ টাকা ও কোরাল ৩৫০ থেকে ৫৫০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া ৫০০ থেকে ৬০০ গ্রামের ইলিশের কেজি ৫৫০ থেকে ৬৫০ টাকা ও এক কেজির ইলিশ ৯০০ থেকে ১ হাজার ১০০ টাকা বিক্রি হতে দেখা গেছে।

শেয়ারবাজার নিউজ/মি

 

 

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.