দুই উদ্বোধনী জুটির হাফ সেঞ্চুরী

bqangশেয়ারবাজার ডেস্ক: পাকিস্তানের দেয়া ২৫১ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে শুভ সূচনা করেছে টাইগাররা।বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের সামনে এটা খুব বড় হওয়ার কথা নয়। বড় হিসেবে দেখাতে চানও না সৌম্য আর তামিম ইকবালরা। সে কারণেই হয়তো মোহাম্মদ হাফিজকে এক রান নিয়ে পূনরায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বোলিংয়ে অভ্যর্থনা জানালেও, উমর গুলকে স্বাগত জানানো হলো বাউন্ডারি দিয়ে। দুই ওপেনারের ব্যাটে ভর করে বলা যায় দারুন সূচনাই হলো বাংলাদেশের।

স্পিনারদের কাছেই নাকাল হতে হয়েছে পাকিস্তানের ব্যাটসম্যানদের। এ কারণেই হয়তো স্পিন দিয়ে শুরু করতে চাইলেন পাকিস্তান অধিনায়ক আজহার আলি। অবৈধ অ্যাকশনের কারণে নিষিদ্ধ হওয়া্ মোহাম্মদ হাফিজ আগেরদিনই আইসিসি থেকে ক্লিয়ারেন্স পেলেন এবং আজ তাকে দিয়েই বোলিং ওপেন করানো হলো। তার প্রথম ওভার থেকে ৬ রান নিলেন তামিম-সৌম্য। দ্বিতীয় ওভার থেকেও নিলেন ৬ রান। চতুর্থ ওভারে গিয়ে উমর গুলকে পর পর দু’বার বাউন্ডারিছাড়া করলেন সৌম্য সরকার।

২৪ ওভার পর্যন্ত কোন উইকেট না হারিয়ে ১২৯ রান করেছে বাংলাদেশ। দলের পক্ষে ওপেনার তামিম ইকবাল ৭১ বলে ৫৮ রান ও সৌম্য সরকার ৭৩ বলে ৬৬ রান নিয়ে স্বাচ্ছন্দে ব্যাট চালিয়ে যাচ্ছেন।

বোলারদের তোপের মুখে মাত্র ২৫০ রানে গুটিয়ে যায় পাকিস্তান। শুরুতে ভালো খেলে বড় সংগ্রহের দিকে এগুতে থাকলেও ৪০ ওভারের পর পাক দলে বিপর্যয় নেমে আসে। সর্বশেষ ৪৯ ওভারে সব কটি উইকেট হারিয়ে ২৫০ রান সংগ্রহ করেছে সফরকারীরা। সাকিব, অধিনায়ক মাশরাফি, পেসার রুবেলও আরাফাত সানি দুটি করে উইকেট পেয়েছেন।

তৃতীয় ও শেষ খেলায় পাকিস্তানের বড় সংগ্রহের পথে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন টাইগাররা। পাক দলের অধিনায়ক আজহার সেঞ্চুরি ও হারিস সোহায়েল ৫৩ রান করার পর আর কোন ব্যাটসম্যানই ভালো করতে পারেনি।

৪১তম ওভারে সাকিব আল হাসানের বলে পাকিস্তান দলের অধিনায়ক আজহার আলী সেঞ্চুরি করে আউট হয়ে যাবার পর তিনটি উইকেট পড়ে যায়। হারিস ৫৩ রান করে প্যাভিলিয়নে ফিরেছেন। অধিনায়ক মাশরাফির বলে ক্যাচ দিয়ে আউট হন হারিস। এরপর থেকে বিরতিহীনভাবে উইকেটের পতন হয়। ৪১ ওভারে দুশ’ রানের ঘর পেরুলেও পরবর্তী ৮ ওভারে ৮টি হারিয়ে গুড়িয়ে যায় পাকিস্তান দল।

আজকের খেলায় প্রথম দিকে বোলাররা তেমন সুবিধা করতে পারেননি। পাকিস্তান দলের বিপক্ষে প্রথম ব্রেক থ্রু আনেন অলরাউন্ডার নাসির। ১৮ ওভারে অলরাউন্ডার নাসিরের বলে কট বিহাইন্ড হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান ওপেনার সামি। এর পরের ওভারেই আরাফাত সানির বলে সরাসরি বোল্ড হয়ে যান পাক দলের নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান হাফিজ। তবে এরপর হারিস সোহায়েল জুটি বেধে দলকে শক্তিশালী অবস্থানে নিয়ে যান।

এখন পাকিস্তানের বিপক্ষে ২৫১ রানের টার্গেট নিয়ে মাঠে নামবেন টাইগাররা। এ খেলায় জিততে পারলেই পাকিস্তানকে বাংলাওয়াশ করার রেকর্ড গড়বেন বাংলার দামাল ছেলেরা।

শেয়ারবাজারনিউজ/রা

আপনার মন্তব্য

Top