আজ: বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১ইং, ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২রা জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৭ এপ্রিল ২০২১, বুধবার |



kidarkar

সালথায় পুলিশ-জনতা সংঘর্ষে ৪ হাজার জনকে আসামি করে মামলা

জাতীয় ডেস্ক: ফরিদপুরের সালথা উপজেলায় পুলিশ ও জনতার সংঘর্ষের ঘটনায় থানা ও উপজেলা পরিষদের অফিসে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করার অভিযোগে চার হাজার জনকে আসামি করে মামলা করা হয়েছে।

ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জামাল পাশা জানান, গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাতে সালথা থানায় ৮৮ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত চার হাজার জনকে আসামি করে পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মো. মিজানুর রহমান মিজান বাদী হয়ে মামলা করেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জামাল পাশা আরও জানান, আরও পাঁচটি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এ পর্যন্ত ১৩ জনকে আটক করা হয়েছে।

গত ৫ এপ্রিল রাতে লকডাউনের প্রথম দিনে সরকারি নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে গিয়ে জনতার সঙ্গে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও তার সহকারীদের ভুল বোঝাবুঝি হয়। তর্কে-বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন স্থানীয়রা। এক পর্যায়ে গুজব রটিয়ে উপজেলা পরিষদ, থানা ও উপজেলা চেয়ারম্যানের বাসভবনসহ বিভিন্ন অফিস ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করেন স্থানীয় জনতা।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জামাল পাশা জানান, পরে রাষ্ট্রীয় সম্পদ রক্ষায় ৫৮৮ রাউন্ড শটগানের গুলি, ৩২ রাউন্ড গ্যাস গান, ২২টি সাউন্ড গ্রেনেড এবং ৭৫ রাউন্ড রাইফেলের গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে পুলিশ। এতে রামকান্তপুর এলাকার জুবায়ের হোসেন (১৮) নামে এক যুবক নিহত হন। আহত হন শতাধিক।

 

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.